শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশ

শিশুর বিকাশে
সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ মস্তিষ্ক।

মস্তিষ্কের ওপর নির্ভর করে-
শিশুর শারীরিক দক্ষতা
শিশুর বুদ্ধিবৃত্তিক দক্ষতা
শিশুর ভাষাগত দক্ষতা
শিশুর আবেগগত দক্ষতা
শিশুর সামাজিক দক্ষতা।

শিশুর মস্তিষ্কের প্রাত্যহিক যত্ন নিন
সুস্বাস্থ্য ও উন্নত পুষ্টি নিশ্চিত করুন
শিশুর নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন
শিশুর সাথে উষ্ণ-যত্নশীল সম্পর্ক তৈরি করুন

জন্মের পূর্বে মস্তিষ্কের কোষ অতিদ্রুত বাড়ে
জন্মের সময় ১০০ বিলিয়ন কোষ নিয়ে জন্মগ্রহণ করে
জন্ম থেকে ৩ বছরের মধ্যে মস্তিষ্কের কোষের সবচেয়ে বেশি উন্নয়ন হয়।
০ থেকে ৬ বছরের মধ্যেই বাচ্চাদের মস্তিষ্কের বিকাশ ঘটে যায় ৯০ শতাংশ।
এই সময়ের মধ্যে প্রতি সেকেন্ডে প্রায় ১০ লাখ নিউরাল সংযোগ হয়।
মস্তিষ্কের বিকাশ আসলে একটা চলমান প্রক্রিয়া
বিভিন্ন বয়সে বিভিন্ন পর্যায়ে মস্তিষ্ক বিকশিত হয়

মস্তিষ্কের বিকাশে শিশুর সাথে কথা বলুন
মস্তিষ্কের বিকাশে শিশুর সাথে পড়ুন
মস্তিষ্কের বিকাশে শিশুর সাথে গান করুন
মস্তিষ্কের বিকাশে শিশুর সাথে ছবি আঁকুন
মস্তিষ্কের বিকাশে শিশুর সাথে খেলুন
মস্তিষ্কের বিকাশে শিশুর সাথে গল্প করুন

শিশু কী চায় বুঝতে চেষ্টা করুন
শিশুর অনন্যতাকে মেনে নিন
শিশুর নিরাপত্তা নিশ্চিত করুন
শিশুর আনন্দে শেখার পথ অণ্বেষণ করুন
শিশুকে নিয়ে ঘুরতে যান
শিশুর পরিচয়ের গণ্ডি বাড়ায়ে তুলুন

শিশুকে খেলার সুযোগ করে দিন
শিশুকে দৌঁড়ানোর সুযোগ করে দিন
শিশুকে বাইসাইকেল চালানোর সুযোগ করে দিন
শিশুকে সাঁতার কাটার সুযোগ করে দিন

শিশুকে ​আয়নায় তাকিয়ে থাকতে দিন
আয়নায় দেখে হাসতে উৎসাহিত করুন
কোনও কিছু বেয়ে উঠতে দিন
লাফ-ঝাপে সহায়ক সরঞ্জাম দিন
বাবল ওড়াতে চাইলে সুযোগ করে দিন
হিজিবিজি লেখলেও  নিরুৎসাহিত করবেন না
জীবাণু-মুক্ত কাদা-মাটি-ধুলো-পাথরের ব্যবস্থা করে দিন

শিশু নিজের দেশকে জানবে
শিশু নিজের গ্রামকে চেনবে
শিশু আত্মীয়-স্বজন-প্রতিবেশিকে চেনবে
শিশু নিজের সংস্কৃতিকে চেনবে
শিশু দেশের মাটিকে ভালোবাসবে
শিশু দেশের মানুষকে দরদ করবে
শিশু নিজের মাতৃভাষাকে সম্মান করবে।
শিশুর ধারণা এসব ব্যাপারে হবে ইতিবাচক।

শিশুকে অজানাকে জানায় সহযোগিতা করুন
শিশুকে নতুনত্বকে চেনায় সহযোগিতা করুন
শিশুকে নিয়মনিষ্ঠার ব্যবহার শেখান
শিশুর প্রাত্যহিক কর্মসূচি তৈরি করে নেন
শিশুর যত্নকারির প্রতি লক্ষ্য রাখুন
শিশুর শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ রাখুন

 

 

About আনিসুর রহমান এরশাদ

শিকড় সন্ধানী লেখক। কৃতজ্ঞচিত্ত। কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। ভেতরের তাগিদ থেকে লেখেন। রক্ত গরম করতে নয়, মাথা ঠাণ্ডা ও হৃদয় নরম করতে লেখেন। লেখালেখি ও সম্পাদনার আগ্রহ থেকেই বিভিন্ন সময়ে পাক্ষিক-মাসিক-ত্রৈমাসিক ম্যাগাজিন, সাময়িকী, সংকলন, আঞ্চলিক পত্রিকা, অনলাইন নিউজ পোর্টাল, ব্লগ ও জাতীয় দৈনিকের সাথে সম্পর্ক। একযুগেরও বেশি সময় ধরে সাংবাদিকতা, গবেষণা, লেখালেখি ও সম্পাদনার সাথে যুক্ত। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স ও মাস্টার্স করেছেন। পড়েছেন মিডিয়া ও জার্নালিজমেও। জন্ম টাঙ্গাইল জেলার সখিপুর থানার হাতীবান্ধা গ্রামে।

View all posts by আনিসুর রহমান এরশাদ →

Leave a Reply

Your email address will not be published.