থানকুনি পাতার যত উপকার

গ্রামবাংলায় সাধারণত একটু স্যাঁতস্যাঁতে পরিবেশে জন্মে থানকুনি। অঞ্চলভেদে এই উদ্ভিদটি বিভিন্ন নামে পরিচিত। শহর বা গ্রাম প্রায় সবখানেই সহজলভ্য এই পাতাটির রয়েছে বিভিন্ন গুণ। চলুন দেখে আসি থানকুনি পাতার উপকার:

নানাভাবে সারা দিন ধরে একাধিক ক্ষতিকর টক্সিন আমাদের শরীরে প্রবেশ করে। প্রতিদিন সকালে এক চামচ মধুর সঙ্গে থানকুনি পাতার রস মিশিয়ে খেলে এগুলোকে শরীর থেকে বের করে দেয়া যায়।

আধা লিটার দুধে ২৫০ গ্রাম মিছরি এবং অল্প পরিমাণ থানকুনি পাতার রস মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করুন। তারপর সেই মিশ্রণ থেকে অল্প অল্প করে নিয়ে প্রতিদিন সকালে খাওয়া শুরু করুন। এক সপ্তাহের মধ্যে গ্যাস্ট্রিকের সমস্যার উপকার মিলবে।

থানকুনি পাতায় থাকা বিভিন্ন ধরনের উপকারী উপাদান হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে।

কোথাও কেটে গেলে থানকুনি পাতা বেটে লাগালে ক্ষতের ব্যাথা কমে ও রক্তপড়া বন্ধ হয়।

থানকুনি পাতা কে পুষ্টির ঘাটতি দূর করার পাশাপাশি বলিরেখা কমাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়।

প্রতিদিন সকালে খালি পেটে নিয়ম করে থানকুনি পাতা খেলে এক সপ্তাহের মধ্যেই আমাশয় সমস্যার উপকার হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *