ফ্রি ওয়াই-ফাই ব্যবহারে বিপদ থেকে বাঁচতে করণীয়

ফ্রি-তে ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন? সাবধান! যে কোনো সময় ফাঁস হয়ে যেতে পারে আপনার গোপন তথ্য। হ্যাকার হানায় আপনার ফোন, ল্যাপটপ ইত্যাদি চলে যেতে পারে অন্যের নিয়ন্ত্রণে। ফ্রি ওয়াই-ফাই ব্যবহার করার ক্ষেত্রে বিপদ অনেক। ফলে খুব সহজেই হ্যাকাররা হামলা চালাতে পারবে। সহজেই কারো ক্রেডিট কার্ডের তথ্য, ব্যাংকের তথ্য, পাসওয়ার্ড, চ্যাট মেসেজ, ইমেল প্রভৃতি সামনে চলে আসবে। সেক্ষেত্রে এয়ারপোর্ট, স্টেশনে ফ্রি ওয়াই-ফাই ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্কও করেছেন বিশেষজ্ঞারা। তারা জানিয়েছেন, খুব প্রয়োজন না থাকলে এই স্থান গুলিতে ওয়াই-ফাই ব্যবহার না করাই ভালো। বাড়ির ওয়াই-ফাইয়ের ক্ষেত্রে এসএসআইডি ডেসেবেল করে রাখার যুক্তি দিয়েছেন বিশেষজ্ঞারা। তাদের যুক্তি এর ফলে হ্যাকারদের নজরে পড়বে না কারো ওয়াই-ফাই।

এসব বিনা মূল্যের ওয়াই-ফাই ব্যবহারের আগে একটু সচেতন হলেই অনেক বড় ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা পাওয়া সম্ভব। এ ব্যাপারে কিছু টিপস-

১. ফোনের অপারেটিং সিস্টেম সবসময় আপডেট রাখুন
সবার আগে খেয়াল রাখতে হবে আপনার ফোনের অপারেটিং সিস্টেম আপডেট আছে কি না। আপডেট অপারেটিং সিস্টেম শুধু আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন বা আইফোনের নতুন ফিচারের জন্যই নয়। আপডেট অপারেটিং সিস্টেমে স্মার্টফোন থেকে তথ্য চুরি হওয়া ঠেকাতে বিশেষ সিকিউরিটি দেওয়া থাকে।

২. স্লো ওয়াই-ফাই কানেকশান থাকলে বিপদ বেশি
ওপেন ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কে ঢোকার পর যদি স্পিড খুব স্লো হয়, তবে সেখানে সমস্যা থাকতে পারে। অনেক সময় সাইন-ইন পেজে গিয়ে স্লো ওয়াই-ফাই কানেকশানের জন্যে লগ ইন আটকে যেতে পারে। অনেক সময় রাউটারে সরাসরি সংযোগের পরিবর্তে অন্য কোনো ডিভাইস ঘুরে রাউটারে যাওয়ার ঘটনা হতে পারে।   সাইবার বিশেষজ্ঞদের মতে, পাবলিক ওয়াই-ফাই ব্যবহারে সব ধরনের সাইবার অপরাধীদের সুযোগ তৈরি হয়।   তথ্য চুরি করতে ব্রাউজিং হিস্ট্রি ছাড়াও ইউজার নেম, পাসওয়ার্ড হাতিয়ে নিতে পারে অপরাধীরা।

৩. ভিপিএন ব্যবহার করুন
ভিপিএন ছাড়া পাবলিক ওয়াই-ফাই ব্যবহার করবেন না। এতে অনেক ঝুঁকি কমে। অনেক ভিপিএন মোবাইল অ্যাপস পাবেন।

৪. ফোনের সিকিউরিটি সফটওয়্যার অবশ্যই জরুরি
যাদের প্রায় সময় পাবলিক ওয়াই-ফাই ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়ে, তাদের স্মার্টফোনে অবশ্যই উপযুক্ত সিকিউরিটি সফটওয়্যার ইনস্টল করা থাকতে হবে। অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোন ইউজারদের ম্যালওয়্যারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি রয়েছে।   সিকিউরিটি সফটওয়্যার থাকলে ম্যালওয়্যার স্ক্যান ও তা দূর করা যায়।

৫. ফ্রি ওয়াই-ফাইয়ে অনলাইন শপিং বা ব্যাংকিং করবেন না
পাবলিক ওয়াই-ফাই ব্যবহার করে অনলাইনে কেনাকাটা কিংবা ব্যাংকিং লেনদেন নিরাপদ নয়।   মোবাইল ইন্টারনেট এক্ষেত্রে নিরাপদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *