শীতে শিশুর ডায়াপার পরিবর্তনে সর্তকতা

শীতের সময়টায় শ্বাসকষ্টসহ নানাবিধ রোগে ভুগে শিশুরা। শীতের এই সময়টায় শিশুদের উপর বাড়তি মনোযোগ দিতে হবে অভিভাবদের এমনটাই জানিয়েছেন শিশু বিশেষ্ণরা। আসুন জেনে নিই আসন্ন শীতে শিশুদের যত্নে কি করা উচিত বড়দের।

সবসময় গরম কাপড়ে মুড়িয়ে রাখবেন না

আমাদের দেশের অভিভাবকদের বদ্ধমূল ধারণা তাপমাত্রা যতই কমবে ততই বেশি কাপড়ে মুড়িয়ে রাখতে হবে শিশুদের। এই ধারণা মোটেই ঠিক নয়। বরং তাপমাত্রার পার্থক্যের ধরণ বুঝেই শিশুদের কাপড়ে মুড়িয়ে রাখতে হবে। রাতের বেলা ও সকালে সূর্য উঠার আগ মুহূর্তে শিশুদের নবজাতক শিশুদের কাপড়ে মুড়িয়ে রাখা যেতে পারে। অন্য সময় এই কাজটি করলে শিশু ঘেমে যেতে পারে। এ ক্ষেত্রে হালকা সুতি কাপড়ে মুড়িয়ে রাখাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে।  আর ৪-৫ বয়সী শিশুদের দিকে খেয়াল রাখতে হবে তারা যেন ঠাণ্ডা ফ্লোরে বসে না থাকে।

লোশন ব্যবহার

শীতে এই সময়ে বড়দের সঙ্গে সঙ্গে শিশুদের ও চামড়া ফেটে যায়, রুক্ষ হয়ে যায়। তাই চামড়ার রুক্ষতা থেকে পরিত্রান পেতে শিশুদের নিয়মিত লোশন ব্যবহার করতে হবে।

শিশুর গোসলের পানি

শীতের দিনে শিশুর গোসল নিয়ে ঝামেলার অন্ত থাকে না অভিবাবকদের। গরম না ঠাণ্ডা পানিতে গোসল করানো উচিত শিশুদের অভিবাবকরা প্রায়ই এমন প্রশ্ন করে থাকেন।  এ ক্ষেত্রে শিশুদের গোসলের পানি হওয়া উচিত কুসুম কুসুম গরম পানি। গোসলের আগে পানির তাপমাত্রা সহনীয় আছে কিনা তা দেখা জরুরী।

ডায়াপার পরিবর্তন

অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেখা গেছে শিশুদের জ্বরের জন্য ডায়াপার একটি অন্যতম কারণ। তাই ডায়াপার পরিবর্তনে দিকে খেয়াল রাখা উচিত অভিবাবকদের।

সচেতনা বৃদ্ধি

শীতে নানান রোগে আক্রান্ত হতে পারে আপনার আদরের শিশু। এই সময়টায় জ্বর, ভাইরাস জ্বর, ফ্লু, কানে ইনফেকশন, ব্রঙ্কাইটিস, নিউমোনিয়া ইত্যাদি রোগ বেশি হয়। তাই অন্যান্য সময়ের তুলনায় বাড়ির সবাইকে বেশি সচেতন থাকতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *