তারুণ্য ধরে রাখতে সহায়ক ডালিম

ডালিমের নানা পুষ্টিগুণ রয়েছে। এমনকি ডালিম তারুণ্য ধরে রাখতে সহায়তা করে। ডালিম আলঝেইমার্সের মতো মস্তিষ্কের রোগ প্রতিরোধ করে, আলঝেইমার্স রোগের চিকিৎসায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। এ ছাড়াও মস্তিষ্কের স্মৃতিশক্তি উন্নত করতেও এটি কাজ করে, স্মৃতিশক্তি ধরে রাখতে ও অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে।।

ডালিম শরীর ফুলে যাওয়া প্রতিরোধ করে। এতে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও ক্যান্সার প্রতিরোধী উপাদান। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, ডালিম বয়স ধরে রাখতে সহায়তা করে। অর্থাৎ দেহের বুড়িয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াকে ধীর করে দেয় এ ফলটি।

ডালিমের একটি উপাদান হলো উরোলিথিনস। এ উপাদানটি হজমের সময় ইলাজিট্যানিনস-এর সঙ্গে একত্রে পেটের উপকারি ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে কাজ করে। ডালিমের স্বাস্থ্যগত সুবিধা পাওয়ার জন্য এটি তাজা অবস্থায় খাওয়া উচিত। তাজা জুস বা সরাসরিও এটি খাওয়া যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *