বিপ্লব বিপ্লবী ও বৈপ্লবিক কর্মকাণ্ড

পৃথিবীতে কত যে বিপ্লব হয়েছে। কিছু বিপ্লব সফল হয়েছে, কিছু বিপ্লব ব্যর্থও হয়েছে। বিপ্লবের পর বিপ্লব হলেও এখনো দেশে দেশে বৈষম্য আছে, দারিদ্র্য আছে, যুদ্ধ আছে। বিপ্লব অতীতে হয়েছে, বর্তমানেও বৈপ্লবিক কর্মকাণ্ড চলছে আর ভবিষ্যতেও আরো বিপ্লব হবে।  মৌলিক সামাজিক পরিবর্তনের স্বপ্ন যতদিন থাকবে এবং সেই স্বপ্ন যতদিন পূরণ না হবে ততদিন বিপ্লবের প্রয়োজন থাকবে, বিপ্লবীদের কর্মকাণ্ডও চলবে।

বিপ্লব আর বিপ্লব

কত যে বিপ্লব! ফ্রান্সে ফরাসি বিপ্লব! ইংল্যান্ডে শিল্প বিপ্লব! রাশিয়ায় বলশেভিক বিপ্লব বা রুশ বিপ্লব বা অক্টোবর বিপ্লব! চীনে চৈনিক বিপ্লব, কমিউনিস্ট বিপ্লব, সাংস্কৃতিক বিপ্লব! গণতান্ত্রিক বিপ্লব! সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব! ইরানে শ্বেত বিপ্লব বা ইসলামী বিপ্লব! ইউক্রেনে অরেঞ্জ বিপ্লব! কিউবায় কিউবান বিপ্লব!

আমেরিকায় শ্রমিক বিপ্লব! সবুজ বিপ্লব! ভারতে সিপাহী বিপ্লব! আফগানিস্তানে রাজতান্ত্রিক বিপ্লব! ইতালিতে রেনেঁসা বিপ্লব! জার্মানিতে জার্মান বিপ্লব বা রিফরমেশন আন্দোলন বা ধর্ম বিপ্লব! কিরগিজস্তানে টিউলিপ বিপ্লব! জর্জিয়ায় রোজ বিপ্লব! ফিলিস্তিনে প্রথম ইন্তিফাদা! ফিলিস্তিনে দ্বিতীয় ইন্তিফাদা! মিয়ানমারে স্প্রিং রেভল্যুশন বা বসন্ত বিপ্লব!

তিউনেশিয়ায় আরব বসন্ত! ভেনিজুয়েলায় বলিভারিয়ান বিপ্লব! চেকোস্লোভাকিয়ায় ভেলভেট বিপ্লব বা জেন্টেল বিপ্লব! হাঙ্গেরিতে হাঙ্গেরিয়ান বিপ্লব! ভিয়েতনামে আগস্ট বিপ্লব! যুক্তরাষ্ট্র আমেরিকান বিপ্লব! মধ্যপ্রাচ্যে ধর্ম বিপ্লব! লেবাননে সিডার বিপ্লব! কুয়েতে নীল বিপ্লব! ইরাকে পারপেল বিপ্লব!

বৈপ্লবিক আর বৈপ্লবিক

কত যে বৈপ্লবিক কর্মকাণ্ড! সেই তুলনায় আমূল ইতিবাচক পরিবর্তনতো কমই। বৈপ্লবিক পরিবর্তন! বৈপ্লবিক বিবর্তন! বৈপ্লবিক অগ্রগতি! বৈপ্লবিক বিজ্ঞান!  বৈপ্লবিক কর্মসূচি! বৈপ্লবিক সংগ্রাম!

বৈপ্লবিক পদক্ষেপ! বৈপ্লবিক ভাবধারা! বৈপ্লবিক দিনগুলো! বৈপ্লবিক আন্দোলন! বৈপ্লবিক ক্রিয়াকলাপ! বৈপ্লবিক দৃষ্টি! বৈপ্লবিক দৃষ্টিভঙ্গী! বৈপ্লবিক মন্তব্য! বৈপ্লবিক সফলতা! বৈপ্লবিক উন্নয়ন! বৈপ্লবিক তত্ত্ব! বৈপ্লবিক ধারা!

বৈপ্লবিক চিকিৎসা! বৈপ্লবিক উদ্ভাবন! বৈপ্লবিক কারণ! বৈপ্লবিক চিন্তাভাবনা! বৈপ্লবিক ধারনা! বৈপ্লবিক সিদ্ধান্ত! বৈপ্লবিক অবদান! বৈপ্লবিক ফলাফল! বৈপ্লবিক নারীবাদ! বৈপ্লবিক আদর্শ! বৈপ্লবিক প্রকৃতি!

বৈপ্লবিক সমাজতন্ত্রী! বৈপ্লবিক রাজনীতি! বৈপ্লবিক তৎপরতা! বৈপ্লবিক ব্যবস্থা! বৈপ্লবিক জাতীয়তাবাদ! বৈপ্লবিক কার্যকলাপ! বৈপ্লবিক সরকার! বৈপ্লবিক মূলমন্ত্র! বৈপ্লবিক সাফল্য! বৈপ্লবিক প্রেম! বৈপ্লবিক আচরণ!

 বিপ্লবী আর বিপ্লবী

প্রকৃত বিপ্লবী বিপ্লবে অংশগ্রহণ করেন, জীবনের ঝুঁকি নিয়েও সমাজ পরিবর্তনের প্রচেষ্টা চালান, মানবতার জন্য আত্মদানের মানসিকতা থেকে বিপ্লবকে সমর্থন করেন, মৃত্যুর চোখে চোখ রেখে নতুনতে স্বাগত জানান।

বিপ্লবের নায়কেরা জীবিতকালে রূপকথার নায়ক থাকেন, মৃত্যুর পরও অমর বিপ্লবীদের সাহসিকতা রূপকথার গল্পকেও হার মানায়। জগতের লাঞ্ছিত-ভাগ্যহতদের মুক্তির দিশারি হয়ে মৃত্যুর পরও লড়ে চলেন বিপ্লবী যোদ্ধারা।

বিপ্লবীদের আত্মদানের আবেগে জেগে উঠে তারুণ্য। যুব-তরুণদের বিদ্রোহ রূপ নেয় গণ-আন্দোলনে, বণর্বাদবিরোধী আন্দোলনে, মুক্তির আন্দোলনে, স্বাধীনতা আন্দোলনে। বিপ্লবীরা অসম্ভব উদ্দেশ্য নিয়ে সাগর পাড়ি দেয়, বন্ধুর গিরিপথ কিংবা পাহাড়-পর্বত পেরিয়ে সামনে এগিয়ে যায়। প্রয়োজনে যে জীবন দিতে প্রস্তুত হয়ে যায়, তাকে দাবায়ে রাখতে পারে না কেউ।

যোদ্ধা গেরিলা বিদ্রোহী

একদল বিপ্লবী যখন অভ্যুত্থান করে, স্বাধীনতাযুদ্ধের দিকে ছুটে; তখন শত্রুদের কোনো অভিযানই আর কাজ করে না। অসম্ভব সাহসিকতা ছাড়া কেউ বিজয় পতাকা ওড়াতে গেরিলা হয় না। শত্রুপক্ষকে হারাতে হারাতে কখনো কখনো বিপ্লবীর ভাবমূর্তি পরাশক্তির সমান হয়ে যায়। হোক তা আফ্রিকার বণর্বাদবিরোধী আন্দোলন, হোক চীনের সাংস্কৃতিক বিপ্লব, হোক ভারতের নকশাল আন্দোলন।

বিপ্লবের কাজ কঠিন। ঘনিষ্ঠ সহযোদ্ধার মৃত্যু হয়। বিজয়ের নতুন ডাক আসে। ঘুমন্ত জাতিকে জাগাতে হয়। প্রশিক্ষণ ‍নিতে হয়। সময় দিতে হয়। আক্রমণের শিকার হতে হয়। হাসিমুখে কারারুদ্ধ হওয়া মেনে নিতে হয়। নিহত স্বজনদের লাশ বহন করতে হয়। আহত পরিচিতদের অশ্রুসিক্ত নয়ন দেখতে হয়। প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও স্বপ্ন দেখতে ও দেখাতে হয়। আগুনের আলোয় ভাগ্য বদলানোর পথ তৈরি করতে হয়।

বিশ্বাসী সাহসী মুক্তিকামী

অর্থবহ ও সার্থক জীবনের সন্ধানে যে চলমান জীবনের সমাপ্তির প্রস্তুতি নিয়েছে ঘাতকেরা তাকে মারলেও তার চেতনা-আদর্শকে হত্যা করতে পারে না। দুর্ভাগ্যজনকভাবে বীরোচিত উদ্যোগীদের ওপর মর্মান্তিক আঘাত অপরাধীদের নৈতিক ভীতকে কাঁপিয়ে দেয়। দুঃখপীড়িত শোষিতদের মুক্তির কান্না খুব কমজনই শুনতে পান। আর মানবতার করুণ কঠিন বাস্তবতা যিনি বুঝতে পারেন তিনি সাধারণ জীবন যাপনে বিশ্বাসী হন।

সেবক সাধক সংগ্রামী

বিপ্লবীরা অন্যের সেবা করতে গিয়ে নিজের ভবিষ্যৎ পথটা ঠিক করেন। মানুষের প্রতি ভালোবাসাই নিজেকে ছাপিয়ে যাওয়ার উদগ্র বাসনা তৈরি করে। মানবতার মুক্তির সাধনা সক্ষম ও শক্তিশালী করে। অযোগ্য থেকে যোগ্য কিংবা অনুপযুক্ত থেকে উপযুক্ত হন। রোমান্টিকতা ছেড়ে নায়কোচিত পরিশ্রমী হন। যিনি সংগ্রামে নেমে পড়েন, সামাজিক বিপ্লবে অংশ নেন- তিনি ব্যর্থতার ভয় করেন না। যিনি মুক্তির জন্য সংগ্রাম করতে বাড়ি ছাড়েন, শত ঝড়ঝাপ্টায়ও তিনি বিশ্বাসে অটল থাকেন।

বিপ্লবীদের উদ্দেশ্য

বিপ্লবীরা যেন অ্যাডভেঞ্চারার! বিশ্বাসের জন্য জীবনের ঝুঁকি নেন। ভোগের চেয়ে ত্যাগে মানসিক তৃপ্তি পান। যা ঘৃণা করেন তা উপরে ফেলতে আত্মকেন্দ্রিকতা ও ভোগবাদ ছাড়েন। দরিদ্র-বঞ্চিতদের সেবায় নিয়োজিত হন। চকচকে জীবনের মোহ পরিত্যাগ করেন।

বিপ্লবীরা নৈতিকতা হারান না। মানবিকতা হারান না। ব্যক্তিগত সুখ ক্রয়ে ব্যস্ত হন না। সস্তা জনপ্রিয়তার চেয়ে অন্তরের গভীরে প্রবেশ করাকে গুরুত্ব দেন। শোষণের কঠিন জোয়ালকে ভেঙে ফেলার পথ দেখান।

About আনিসুর রহমান এরশাদ

শিকড় সন্ধানী লেখক। কৃতজ্ঞচিত্ত। কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। ভেতরের তাগিদ থেকে লেখেন। রক্ত গরম করতে নয়, মাথা ঠাণ্ডা ও হৃদয় নরম করতে লেখেন। লেখালেখি ও সম্পাদনার আগ্রহ থেকেই বিভিন্ন সময়ে পাক্ষিক-মাসিক-ত্রৈমাসিক ম্যাগাজিন, সাময়িকী, সংকলন, আঞ্চলিক পত্রিকা, অনলাইন নিউজ পোর্টাল, ব্লগ ও জাতীয় দৈনিকের সাথে সম্পর্ক। একযুগেরও বেশি সময় ধরে সাংবাদিকতা, গবেষণা, লেখালেখি ও সম্পাদনার সাথে যুক্ত। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স ও মাস্টার্স করেছেন। পড়েছেন মিডিয়া ও জার্নালিজমেও। জন্ম টাঙ্গাইল জেলার সখিপুর থানার হাতীবান্ধা গ্রামে।

View all posts by আনিসুর রহমান এরশাদ →

Leave a Reply

Your email address will not be published.