অভিজ্ঞতা অভিজ্ঞতার ভাণ্ডার ও অভিজ্ঞতার মূল্য

অভিজ্ঞতা থেকে কেউ শিক্ষা নেন, কেউ নেন না। যিনি নেন- তিনি ভুল থেকেও শিক্ষা নেন, ব্যর্থতা থেকেও শিক্ষা নেন। অভিজ্ঞতাকে কেউ কাজে লাগায়ে ভালো সিদ্ধান্ত নিতে পারে, কেউ কাজে লাগাতে পারে না। চাকরির ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা দরকার। গবেষণার জন্যেও অভিজ্ঞতা জরুরি। তার মানে শুরুটা অভিজ্ঞতা ছাড়াই করতে হয়। আর কাজের অভিজ্ঞতা অর্জনের পর পথ চলাটা মসৃণ হয়। আসলে অতীতের সঞ্চিত অভিজ্ঞতার বিকল্প নাই।

নতুন নতুন কত অভিজ্ঞতা! অম্ল মধুর অভিজ্ঞতা! বিশেষায়িত অভিজ্ঞতা! অসামান্য অভিজ্ঞতা! কাজের অভিজ্ঞতা! বিভীষিকাময় অভিজ্ঞতা! তিক্ত অভিজ্ঞতা! করুণ অভিজ্ঞতা! নিকট-মৃত্যুর অভিজ্ঞতা! মহামারির অভিজ্ঞতা! ভ্রমণ অভিজ্ঞতা! ইন্টারনেট অভিজ্ঞতা! রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা! শিউরে ওঠা অভিজ্ঞতা! যদিও অভিজ্ঞতার বাইরে কেবল অনুভূতির মাধ্যমেও অনেক জ্ঞান লাভ করা সম্ভব! বিভিন্ন কাজের মধ্য দিয়ে অর্জিত অতীতের অভিজ্ঞতাকে বর্তমানে নতুনদের সাহায্য করার কাজে লাগালে তা দারুণ অর্থবহ হয়।

বুদ্ধির সাথে অভিজ্ঞতার সমন্বয় হলে তা হয় বেশি সুখকর-উপকারি-ফলপ্রসূ! অভিজ্ঞতার বিভিন্ন পর্যায় রয়েছে। জীবনে ভিন্ন ভিন্ন শ্রেণীর অভিজ্ঞতাও হয় ভিন্ন ভিন্ন! কারো কারো কাজের অভিজ্ঞতা বর্ণনা করার প্রয়োজন হয়, কারো কখনোই নিজের অভিজ্ঞতা অপরকে জানানোর প্রয়োজন পড়ে না। কারো কারো জন্য জীবনের প্রতিটি ঘটনাই যেন অতি মূল্যবান অভিজ্ঞতা। স্মরণীয় ও শিক্ষণীয় অভিজ্ঞতাগুলো তুলনামূলকভাবে বেশি মূল্যবান! অভিজ্ঞতা জ্ঞানেরও উৎস, বিপদ ও সমস্যা থেকে উত্তরণেরও সহায়ক শক্তি ।

জীবনের নানা অভিজ্ঞতার মধ্যে কিছু রয়েছে সেরা অভিজ্ঞতা! কেউ কেউ তো অভিজ্ঞতা তুলে ধরে বইও লিখে। চাকরির ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা সনদকে অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ বিবেচনা করা হয়। কোনো একটি টীমে প্রয়োজনীয় সংখ্যক অভিজ্ঞ সদস্য থাকলে তাদের অভিজ্ঞতা কাজে লাগিয়ে ভালো ফলাফলেও চোখ রাখা সম্ভব হয়। অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করতে পারা ও তা যথাসময়ে যথাযথভাবে ব্যবহার করতে পারাও দক্ষতারই অংশ!

নানা বিষয়ে অভিজ্ঞতা আছে এমন মানুষ অভিজ্ঞতা থেকে বৈচিত্র্যময় জ্ঞান বিতরণ করতে পারে। প্রতিদিনের অভিজ্ঞতার ঝাঁপি কেউ কেউ খুলে বসে, কেউ কেউ অন্যের সাথে শেয়ারই করে না। কিছু কিছু অভিজ্ঞতা এমন গল্পের মতো বলা যায়, আর কিছু কিছু অভিজ্ঞতা আছে যা অন্যকে জানানো যায় না।

জীবনে এমন অনেক অদ্ভুত অভিজ্ঞতার অবতারণা হয়, যেসব অভিজ্ঞতার প্রয়োজন নেই। আবার কখনো কখনো বাস্তব এমন কিছু অভিজ্ঞতা সম্পন্ন মানুষের দরকার হয়, যাদের আসলে নাগাল পাওয়াই কঠিন! বিশেষ করে পেশাগত অভিজ্ঞতা ক্ষেত্র বিশেষে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে।

একই ধরণের অভিজ্ঞতার অনুভূতি বা প্রতিক্রিয়া ব্যক্তিভেদে বিভিন্ন হয়! অনুভূতি-উপলব্ধির ক্ষেত্রে অভিজ্ঞতা প্রকাশের ভঙ্গি বা উপস্থাপনা কবির মতো একজন সাধারণের হবে না, ভিন্ন হবে। রুচিবোধ-দৃষ্টিভঙ্গির ভিন্নতা থাকলে অভিজ্ঞতার আলোকে পদ্ধতি অবলম্বনের ক্ষেত্রেও ভিন্নতা আনে। অভিজ্ঞতা উন্নত করার মাধ্যমে জীবনকেও উন্নত করা যায়।

মন্দ-খারাপ-ক্ষতিকর অভিজ্ঞতা নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমেও জীবনকে এগিয়ে নেয়া যায়! বিশেষ সাংস্কৃতিক-সামাজিক বাস্তব অভিজ্ঞতা সহয়ক হয় বিশেষ বুঝাপড়া ও দক্ষতা তৈরিতে! পেশাদার ফটোগ্রাফির অভিজ্ঞতা যার আছে আর যার নেই, দুজনের কাজের কোয়ালিটি একই হবে না।

একজন অভিজ্ঞ ব্যক্তি যত সুচারুভাবে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালিয়ে যেতে পারেন, যার অভিজ্ঞতা নেই তার পক্ষে অতটা নিখুঁতভাবে কাজটি সম্পাদন করা সম্ভব নয়। যিনি নিজের অভিজ্ঞতার ভাণ্ডার উজাড় করে দিতে পারেন তিনি অন্যের অভিজ্ঞতা যাচাইও করতে পারেন।

শেখানোর অভিজ্ঞতা আর শেখার অভিজ্ঞতা এক নয়! যিনি অভিজ্ঞতাকে ব্যক্ত করতে সক্ষম, তিনি নিজের অভিজ্ঞতায় অন্যকে সমৃদ্ধ করতেও সক্ষম। অভিজ্ঞতা খারাপ হতে পারে এমন আশংকায় যে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলাই করে না, তার ভালো অভিজ্ঞতা হবার সম্ভাবনাও তৈরি হয় না।

ব্যবসায়িক অভিজ্ঞতা ছাড়া ব্যবসা শুরু করা যতটা কঠিন, চাকরির অভিজ্ঞতা ছাড়া চাকরি শুরু করা ততটা কঠিন নয়। একটি প্রতিযোগিতার অভিজ্ঞতা আরেকটি প্রতিযোগিতায় কাজে লাগানো যেতেও পারে আবার নাও পারে!

সবসময় যে বেশিদিন কাজের অভিজ্ঞতা থাকলে ভালো- এমনটি নয়। কখনো কখনো নেতিবাচক অভিজ্ঞতা সম্পন্ন অভিজ্ঞরা ইতিবাচক উদ্যোগে সঠিক ভূমিকা নিতে অক্ষমও হতে পারেন। সচরাচর হয় না, এমন কোনো অস্বাভাবিক অভিজ্ঞতা যা ক্ষতি ডেকে আনে বা ক্ষতিকর উদ্দীপনা; তা এড়ানোই ভালো।

অভিজ্ঞতা ধোঁকাও দিতে পারে, সঠিক পথও দেখাতে পারে৷ এটা নির্ভর করে অভিজ্ঞতা থেকে উদ্ভূত বাস্তবতাকে ধারণ করার মতো মানসিকতা বা মানসিক পরিপক্কতার অবস্থার ওপর। কোনো কোনো অভিজ্ঞতা উপভোগ্য হয়। কখনো কখনো অভিজ্ঞতার দাম সবচেয়ে ভালোভাবে অনুধাবনও হয়।

অন্যের অভিজ্ঞতা থেকে অনুধাবনের চেয়ে অভিজ্ঞতা অর্জন করে উপলব্ধি করা বেশি যুতসই! যদি হোঁচট খাওয়ার অভিজ্ঞতাও হয়, তা ভবিষ্যতে দৌঁড়াতে পারার মতো শক্তিশালী ও পরিণত হতে সহায়ক। কারণ অভিজ্ঞতা বিশ্বাসকে শক্তিশালী করে, দক্ষতাকে শাণিত করে আত্মবিশ্বাসকে মজবুত করে।

বয়স বেশি হওয়া অভিজ্ঞতা বেশি হওয়ার প্রমাণ নয়। একই পথের পথিক, একই দলের কর্মী, একই অফিসের কর্মকর্তা, একই পদের দায়িত্বশীল হবার পরও দেখা-বলা-লেখা এক হয় না; বিশ্লেষণের-বিবেচনার জন্য অর্জিত অভিজ্ঞতাও ভিন্ন হয়ে থাকে।

About আনিসুর রহমান এরশাদ

শিকড় সন্ধানী লেখক। কৃতজ্ঞচিত্ত। কথায় নয় কাজে বিশ্বাসী। ভেতরের তাগিদ থেকে লেখেন। রক্ত গরম করতে নয়, মাথা ঠাণ্ডা ও হৃদয় নরম করতে লেখেন। লেখালেখি ও সম্পাদনার আগ্রহ থেকেই বিভিন্ন সময়ে পাক্ষিক-মাসিক-ত্রৈমাসিক ম্যাগাজিন, সাময়িকী, সংকলন, আঞ্চলিক পত্রিকা, অনলাইন নিউজ পোর্টাল, ব্লগ ও জাতীয় দৈনিকের সাথে সম্পর্ক। একযুগেরও বেশি সময় ধরে সাংবাদিকতা, গবেষণা, লেখালেখি ও সম্পাদনার সাথে যুক্ত। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃবিজ্ঞান বিভাগে অনার্স ও মাস্টার্স করেছেন। পড়েছেন মিডিয়া ও জার্নালিজমেও। জন্ম টাঙ্গাইল জেলার সখিপুর থানার হাতীবান্ধা গ্রামে।

View all posts by আনিসুর রহমান এরশাদ →

Leave a Reply

Your email address will not be published.