শুভ সত্তার জাগরণ হোক

আনিসুর রহমান এরশাদ

নিজের বেঁচে থাকার ব্যাপারে লোভীদেরও অন্যের ক্ষতি করার কৌশল-পদ্ধতি উন্নয়নে সচেষ্ট থাকতে দেখা যায়। পাপ কাজে লিপ্ত ব্যক্তির দীর্ঘায়ু তার গুনাহর পাল্লা আরো বেশি ভারি করায় সহায়ক। যে লোভ-লালসার দাস হয়ে পড়ে, হাজার বছর আয়ু পেলেও সেই দাসত্ব থেকে তার মুক্তি মেলে না।

একজন মাদকাসক্তের সামনে মধু, দুধ ও মদ রেখে কোনো একটিকে বেছে নিতে বললে সে যেমন মদকেই বেছে নেবে; পাপাসক্ত ব্যক্তিও তেমনই। বিবাহিত হলেও সে পরনারী বা পরপুরুষকে বেছে নেবে, বেতন-ভাতা বাড়ালেও সে ঘুষকেই পছন্দ করবে, ব্যবসার সুযোগ থাকলেও সে সুদকেই পছন্দ করবে! যে উত্তম বিকল্প খুঁজে না, সে উত্তম বিকল্প পায়ও না।

একই সংবাদ কারো কাছে সুসংবাদ, কারো কাছে দুঃসংবাদ। ভেজালবিরোধী কঠোর আইন হওয়ার সংবাদ ভেজালপ্রেমী সুবিধাভোগী ব্যবসায়ীর জন্য দুঃসংবাদ আর ভোক্তার জন্য সুসংবাদ। দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলন শক্তিশালী হওয়া দুর্নীতিবাজদের জন্য দুঃসংবাদ আর দুর্নীতিমুক্ত সমাজের প্রত্যাশীদের জন্য সুসংবাদ। বক্রপথে চলতে অভ্যস্ত মানুষ বাধা পেলে আরেকটি বক্রপথই তৈরি করে। সঠিক পথে পরিচালিত মানুষ বাধা পেলে বিকল্প আরেকটি ভালো পথই খুঁজে নেয়।

শুধু শত্রু বেশি মানেই কেউ খারাপ নয়, আর বন্ধু বেশি মানেই কেউ ভালো নয়! বিরোধীতাকারী প্রতিবাদী শত্রুর চেয়ে বন্ধুত্বের লেবাসধারী শত্রু অধিক ভয়ঙ্কর। খারাপে অভ্যস্ত মানুষের উত্তম অভ্যাস গড়ে তোলা, ভালোতে অভ্যস্ত মানুষের বদভ্যাসে জড়ানোর মতোই কঠিন। অপরাধীকে শাস্তিদানের জন্য শাস্তিদাতার ক্ষমতা অপরাধীর চেয়ে বেশি হতে হয়। কিন্তু যেখানে অপরাধীরই ক্ষমতা বেশি সেখানে অপরাধীর স্বর্গরাজ্য প্রতিষ্ঠা হয়।

যখন ক্ষমতাধর অমানুষদের নেকদৃষ্টি পাবার আশায় অসহায় মানুষগুলো অপেক্ষা করে, তখনকার দৃশ্যটা বড়ই করুণ-বেদনাদায়ক হয়ে ওঠে।কল্যাণকামী অযোগ্য মানুষ কল্যাণ অবতীর্ণ হওয়ার জন্য যখন দোয়া করতে থাকে, অকল্যাণ সৃষ্টিকারী যোগ্যরা তখন সংঘবদ্ধ প্রচেষ্টা চালিয়ে বিশৃঙ্খলাকে ত্বরাণ্বিত করতে পারে। চেষ্টার মোকাবেলা করতে হয় চেষ্টার মাধ্যমেই, চেষ্টা ছাড়া দোয়া অর্থহীন হয়ে পড়ে। আসলে প্রচেষ্টা কতটা জোরালো তার ওপর নির্ভর করে ফলাফল, সেটি ভালো নাকি মন্দ তার ওপরে নয়।

তখন অসত্যের দাপট দেখা দেয়, যখন সত্যবাদীরা হয় ভীরু-অক্ষম-নিরুদ্যম। আর অন্যায়কারীর ভিত কেঁপে ওঠে তখন, যখন ন্যায়পন্থীরা হয় ঐক্যবদ্ধ-ক্ষিপ্র-গতিশীল। অত্যাচারীরা ততক্ষণ নিশ্চিন্ত নয় যতক্ষণ মজলুমদের মাঝে প্রতিবাদী সত্তা জাগরুক থাকে। প্রতিবাদী চেতনা লোপ পেলে স্বেচ্ছাচারীরা নির্বিঘ্নে নিজেদের কাজ চালিয়ে যেতে পারে।

প্রতিবাদী চেতনা হারানো মানে মানবিকতা-মনুষত্বের পরাজয় ত্বরান্বিত হওয়া আর জীবন্ত লাশ হওয়া। এরা অধিকার হারালে আফসোস করলেও প্রতিবাদ করে না, লাথি খেয়ে মন খারাপ হলেও লড়াই-সংগ্রাম করে না, নিজের ক্ষতি করলেও জুলুমবাজের প্রশংসা করে। নির্যাতিত-নিপীড়িত মানুষের নিরুত্তাপ অবস্থা অত্যাচারিকে উদ্বেগহীন-দুশ্চিন্তামুক্ত করে।

যারা সৃষ্টিতে আনন্দ পায় তারা গড়ায় বিশ্বাসী, যারা ভাঙনে আনন্দ পায় তারা ধ্বংসে বিশ্বাসী। এই ভাঙন হতে পারে সংসারে, হতে পারে দলে কিংবা হতে পারে প্রতিষ্ঠানে! যে বিদ্যা-বুদ্ধি মানুষের উপকার না করে ক্ষতি করে, সে বিদ্যা-বুদ্ধি জঘন্য। যে পদ-ক্ষমতা মানুষকে দমন-পীড়নে ব্যবহার হয়, সেই পদে আসীন মানুষটি মশা-মাছির চেয়েও মূল্যহীন!

অন্তরে পোষিত হিংসা সরল পথ থেকে বিচ্যুত করে, সহজ জীবনকে জটিল করে আর সত্যতে অস্পষ্ট করে। ভালো কাজই উত্তম দলীল, ভালো কাজ সম্পাদনকারীরাই সত্যিকারের সফলকাম! খারাপ কাজের ফল সাময়িকভাবে মিষ্টি হলেও দীর্ঘমেয়াদে তা তিক্ততায় ভরা দুঃখপূর্ণ।

পাপীদের অন্তরগুলো একই রকম, এদের মধ্যে অদৃশ্য একতা রয়েছে। অতীতে কিংবা বর্তমানে পাপীদের কাজের স্বপক্ষে যুক্তিতে অনেক মিল রয়েছে। এরা কখনোই পুণ্যবানের সাহায্যকারী হয় না। কিছু মানুষ আছে যারা সবসময় সবলের পক্ষে আর দুর্বলের বিপক্ষে, সবলের গুণগান করাই তাদের স্বভাব। তারা ক্ষমতাবানকে প্রশ্ন করে না, ক্ষমতাবানের সমালোচনা করে না; ব্যক্তিগত সুযোগ-সুবিধার জন্য মাথাকে নত করে।

এরা দুর্বলের কান্নাকে ভাবে বোকামি, চিৎকারকে ভাবে অসামাজিকতা, আর্তনাদকে ভাবে পাগলের প্রলাপ। মূলত এরা ক্ষমতাকে আশ্রয় করে নিজেদের দুর্বলতাকে ঢেকে রাখতে চায়, অক্ষমতাকে লুকিয়ে ফেলতে চায়! অথচ এরা ভুলেই যায় যে, মেরুদন্ড সোজা করে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে কেবল সাহসী সত্যপন্থীরাই।

পরিবার.নেট

About পরিবার.নেট

পরিবার বিষয়ক অনলাইন ম্যাগাজিন ‘পরিবার ডটনেট’ এর যাত্রা শুরু ২০১৭ সালে। পরিবার ডটনেট এর উদ্দেশ্য পরিবারকে সময় দান, পরিবারের যত্ন নেয়া, পারস্পরিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করা, পারিবারিক পর্যায়েই বহুবিধ সমস্যা সমাধানের মানসিকতা তৈরি করে সমাজকে সুন্দর করার ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। পরিবার ডটনেট চায়- পারিবারিক সম্পর্কগুলো হবে মজবুত, জীবনে বজায় থাকবে সুষ্ঠুতা, ঘরে ঘরে জ্বলবে আশার আলো, শান্তিময় হবে প্রতিটি গৃহ, প্রতিটি পরিবারের সদস্যদের মানবিক মান-মর্যাদা-সুখ নিশ্চিত হবে । আগ্রহী যে কেউ পরিবার ডটনেট এর সাথে সঙ্গতিপূর্ণ যেকোনো বিষয়ে লেখা ছাড়াও পাঠাতে পারেন ছবি, ভিডিও ও কার্টুন। নিজের শখ-স্বপ্ন-অনুভূতি-অভিজ্ঞতা ছড়িয়ে দিতে পারেন সবার মাঝে। কনটেন্টের সাথে আপনার নাম-পরিচয়-ছবিও পাঠাবেন। ইমেইল: poribar.net@gmail.com

View all posts by পরিবার.নেট →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *