প্রচারের চেয়ে উন্নয়ন জরুরি : ইলন রিভ মাস্ক

স্পেসএক্স ও টেসলা মোটরস এর সিইও ইলন রিভ মাস্ক বলেন, ‘যে কাজটা করা তোমার জন্য অতি জরুরি, সেটির জন্য অবশ্যই চেষ্টা করা উচিত। এমনকি কাজটির সফলতার সম্ভাবনা শূন্য হওয়া সত্ত্বেও। একজন সফল উদ্যোক্তা হওয়া অনেকটা ওভেনে কেক বেক করার মতো।

তোমার নিজের মধ্যে প্রতিটি উপাদান সঠিক মাত্রায় থাকা বাঞ্ছনীয়। জীবনে ব্যর্থতা না আসলে তুমি সত্যিকার অর্থে নতুন কিছু উদ্ভাবন করতে পারবে না।

আমি সর্বদা সমালোচনা খুঁজে বেড়াই। তোমার কাজের প্রতি একজন যুক্তিসম্পন্ন সমালোচক স্বর্ণালংকারের মতো মূল্যবান। আপনি যা-ই করেন না কেন, একজন সুবিবেচকের সমালোচনা আপনার কাছে স্বর্ণের চেয়েও মূল্যবান।

আমি কখনোই হার মানিনি। মৃত্যু এলে কিংবা একেবারে অক্ষম হয়ে গেলে তবেই কেবল আমি হার মানব।

প্রচারের চেয়ে উন্নয়ন জরুরি। টেসলা কখনোই বিজ্ঞাপনের জন্য তেমন খরচ করেনি, যতটা পণ্যের উন্নয়নের জন্য করেছে। অনেক প্রতিষ্ঠান দ্বিধায় পড়ে যায়। তারা এমন সব খাতে টাকা ব্যয় করে, যেগুলো তাদের উৎপাদনকে উন্নত করে না। এমন ব্যয় মোটেও কোনো কাজের নয়।

মঙ্গলে বসতি গড়ার কল্পনা আমাকে সবচেয়ে বেশি অনুপ্রাণিত করে। প্রতিদিন কিছু সমস্যা সমাধানের চাইতে জীবনটা অনেক বড়। অতএব, জেগে উঠুন আর ভবিষ্যতের কল্পনায় রোমাঞ্চিত হোন।

কেউ সপ্তাহে ৪০ ঘণ্টা কাজ করছে আর আপনি হয়তো ১০০ ঘণ্টা কাজ করছেন। দুজন হয়তো একই কাজ করছেন। নিশ্চিত থাকুন, অন্য মানুষটি যেটা এক বছরে অর্জন করবে, সেটা আপনি মাত্র চার মাসেই অর্জন করতে পারবেন।

যে কাজটি করছেন সেটাকে ভালোবাসা খুব জরুরি। যদি তা না হয়, তাহলে মনে হবে, নিজের ওপর জোর খাটাচ্ছেন। এভাবে হয়তো কিছুদিন চলতে পারবেন। কিন্তু যখন কঠিন সময় আসবে, তখন আর সামলাতে পারবেন না।

যদি আপনি কাজটাকে ভালোবাসেন, তাহলে নিশ্চয়ই কাজের সময় ছাড়াও আপনি এটা নিয়ে ভাববেন। আপনার মস্তিষ্ক এই ভাবনার সঙ্গে অভ্যস্ত। আর যদি পছন্দ না করেন, জোর করে এটা সম্ভব নয়।

কোনো কিছু করা দরকার মনে হলে প্রতিকূল পরিস্থিতি আরও প্রতিকূল হলেও আপনি সেটা করবেন। আমার ছোট্ট লাইব্রেরিতে মহাকাশ-সম্পর্কিত যত বই আছে, সব আমি পড়েছি।

কাজের মধ্যে থেকে ধাপে ধাপে এগোনো উচিত।

অনেকেই বিজনেস স্কুলের উঁচু দরের এমবিএ স্কুল থেকে ডিগ্রি নিয়ে একলাফে নেতৃস্থানীয় পদে যায়। তবে গিয়ে দেখে, কাজটা কীভাবে করতে হবে, তা-ই জানা নেই। তারা হয়তো পাওয়ারপয়েন্ট প্রেজেন্টেশন দেওয়ায় ভালো হতে পারে, হয়তো আইডিয়া ভালো উপস্থাপন করতে পারে, তবে তারা জানে না, আসল কাজটা কীভাবে করতে হয়। তারা কাজ করে এগোনোর চেয়ে একলাফে এগোতে চায়। ভালো একটি পণ্য তৈরিতে কী দরকার, সে ব্যাপারে তাদের ধারণা নেই।

About পরিবার.নেট

পরিবার বিষয়ক অনলাইন ম্যাগাজিন ‘পরিবার ডটনেট’ এর যাত্রা শুরু ২০১৭ সালে। পরিবার ডটনেট এর উদ্দেশ্য পরিবারকে সময় দান, পরিবারের যত্ন নেয়া, পারস্পরিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করা, পারিবারিক পর্যায়েই বহুবিধ সমস্যা সমাধানের মানসিকতা তৈরি করে সমাজকে সুন্দর করার ব্যাপারে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। পরিবার ডটনেট চায়- পারিবারিক সম্পর্কগুলো হবে মজবুত, জীবনে বজায় থাকবে সুষ্ঠুতা, ঘরে ঘরে জ্বলবে আশার আলো, শান্তিময় হবে প্রতিটি গৃহ, প্রতিটি পরিবারের সদস্যদের মানবিক মান-মর্যাদা-সুখ নিশ্চিত হবে । আগ্রহী যে কেউ পরিবার ডটনেট এর সাথে সঙ্গতিপূর্ণ যেকোনো বিষয়ে লেখা ছাড়াও পাঠাতে পারেন ছবি, ভিডিও ও কার্টুন। নিজের শখ-স্বপ্ন-অনুভূতি-অভিজ্ঞতা ছড়িয়ে দিতে পারেন সবার মাঝে। কনটেন্টের সাথে আপনার নাম-পরিচয়-ছবিও পাঠাবেন। ইমেইল: poribar.net@gmail.com

View all posts by পরিবার.নেট →

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *